1. admin@voicectg.com : admin :
শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ১২:৫৫ অপরাহ্ন

ঝালকাঠিতে এলজিইডির খালখননে গ্রামীণ আর্থ সামাজিক উন্নয়নে প্রভাব।

বাধন রায় ঝালকাঠি প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

বাঁধন রায়
ঝালকাঠি প্রতিনিধি
বুধবার-সেপ্টেম্বর-২৩-২০২০,

ঝালকাঠি জেলায় এলজিইডির আওতায় খাল পূনঃখননের গ্রামীন ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ইতিবাচক প্রভাব।

ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার মগড় ইউনিয়নে মগড় পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির মাধ্যমে এলজিইডির সহায়তায় খাল পূনঃখনন করা হয়েছে। এই খাল খননের ফলে এলাকার কৃষি জমি মৌসুমী আবাদের উপযোগী হয়েছে। এতে এলাকার গরীব চাষীদের মধ্যে আশা সঞ্চার হয়েছে। খাল খননের পর সুবিধা ভোগ করছেন হাজারো কৃষক এবং সমিতির সদস্যদের কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি পেয়েছে ।

এই খালে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় মগড় পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির উদ্যেগে মোট ৪ টি খালের প্রায় ৬.০০কি.মি. পূনঃখনন করা হয়েছে। এতে মোট ২১ টি এল.সি.এস. দল কাজ করে যার মধ্যে ৩৬৫ জন পুরুষ ও ১৬০ জন মহিলা শ্রমিক কাজ করেছে। এই কাজের ফলে পুরুষ ও মহিলা উভয়েরই কর্মসংস্থানের সুযোগ ঘটেছে। তারা অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হয়েছেন। খালের মাটি দ্বারা দুই পাশের্বর রাস্তা মেরামত করে জনগনের চলাচলের জন্য উপযোগী রাস্তা তৈরি হয়েছে। রাস্তার দুই পাশের্ব সামাজিক বনায়নের ফলে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হচ্ছে এবং পাখিদের অভয়াশ্রম তৈরি হয়েছে।

খাল পুনঃখননের ফলে বিলুপ্ত প্রায় আউশ ধানের পুনরায় চাষাবাদ সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। রবি ফসলের ব্যাপক অগ্রগতি সাধিত হবে, বিভিন্ন ধরনের শাক্-সবজি চাষ, এক ফসলীয় জমিকে, বহু ফসলীয় জমিতে রুপান্তরিত করা সম্ভব হচ্ছে। ফসলের নিবিরতা বৃদ্ধি,পতিত জমির পরিমান কমছে, কৃষকের আয় বৃদ্ধি, কৃষি শ্রমিকের সারা বছরই কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসীর কৃষি ও আর্থ-সামাজিক অবস্থার ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। ঝালকাঠির স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ রুহুল আমিন জানান, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য অনুসারে কোন আবাদী জমি পতিত রাখা যাবেনা। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে সমস্ত জমিগুলোকে আবাদি জমিতে রুপান্তরিত করতে হবে”।

এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় তার কার্যক্রম পরিচালনা করছে। খাল খননের সুবিধা দেখে জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ জনগণ বাস্তবায়নকারী দপ্তর (এলজিইডি)-র কাজকর্মে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছে। গ্রামীন ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় খাল খননের প্রভাব ফেলেছে।

ছবিঃ ঝালকাঠিল টেকসই ক্ষুদ্রাকার পানি সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় মগড় পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির উদ্যেগে খাল পুনঃখনন। ২৩/০৯/২০২০

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব