1. admin@voicectg.com : admin :
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

থানচিতে সফর সঙ্গীদের বাঁচাতে গিয়ে, নিজেই লাশ হলেন কানন |

চিংথোয়াই অং মার্মা, থানচি প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৬৪ বার পড়া হয়েছে

চিং থোয়াই অং মার্মা
থানচি প্রতিনিধি
রোববার-অক্টোবর-০৪-২০২০,

থানচিতে সফর সঙ্গীদের বাঁচাতে গিয়ে,নিজেই লাশ হলেন কানন|

বান্দারবানের থানচিতে আজ সকাল ১১ টার দিকে রোববার (০৪ অক্টোবর) নিখোঁজ হওয়া পর্যটককের লাশ উদ্ধার করেছে স্হানীয় প্রশাসন।
থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল হক (মৃদুল) এর দিকনির্দেশনা ও সার্বিক তত্বাবধানে, থানচি বিজিবি ক্যাম্প ও থানচি থানা যৌথভাবে এ উদ্ধার অভিযানে অংশ নেন বলে জানাগেছে। উদ্ধারশেষে আজ পরিবারের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গতকাল শনিবার (০৩ অক্টোবর) বান্দরবানের থানচি উপজেলার রেমাক্রী ইউনিয়নে নাফাখুম ঝর্ণায় ভ্রমনে গিয়ে সাঁতরিয়ে রেমাক্রী খাল পারাপারের সময় সইংগন নামক স্থানে খালে ডুবে নিখোঁজ হন পর্যটক কাজী জাকারুল ইসলাম কানন (৩৫)। ঢাকা উত্তরার বাসিন্দা পিতা কাজী জহিরুল ইসলাম ও মা সালমা বেগম দুজনেই পেশায় চক্ষু বিশেষজ্ঞ। এই চিকিৎসক দম্পত্তির হতভাগা সন্তান কানন।

সফর সঙ্গীদের বাঁচাতে গিয়ে নিজেই লাশ হলেন কানন।

নাফাখুম পর্যটক স্পটের ঢাকা থেকে আগত ও নিহত কাননের ভ্রমন সংগী মোাহাম্মদুর রহমান (৩০) ও তারঁ স্ত্রীর ছিত্রাতুল মমতাহার মমিন (২৩) জানান, রেমাক্রী খালে সইংগন নামক স্থানে খাল পারাপারে সময় আমরা দুজনের পায়ের স্লিপ খেয়ে খালে পড়ে যায়। তাৎক্ষনিকভাবে স্থানীয় গাইড শ্রাবন ত্রিপুরা ছিত্রাতুল মমতাহার মমিন (২৩) কে উদ্ধার করেন। এবং মৃত কাজী জাকারুল ইসলাম কানন (৩৫) মমিন (২৩) তারঁ স্বামী মোহাম্মদুর রহমান (৩০) কে উদ্ধার করে তিনি নিজেই খালে প্রবল পানির স্রোতে ডুবে গিয়ে নিখোঁজ হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব