1. admin@voicectg.com : admin :
শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:০৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ফতোয়া সংক্রান্ত জরুরি বৈঠক চলছে ঢাকায় | বান্দারবানে দায়ীত্ব পালনকালে স্ট্রোকে পুলিশের এআইজির মৃত্যু | নানিয়ারচরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ইউপিডিএফ সদস্য নিহত | মারা গেছেন কুন্ডেশ্বরীর লায়ন প্রফুল্ল রঞ্জন সিংস | কুমিল্লায় ৯ তলা ভবন থেকে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু | পিরামিডের সামনে নগ্নতার দায়ে মডেল সালমা এলশিমি গ্রেপ্তার | সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদান,ভোলায় পুরস্কৃত ভয়েস সিটিজি’র ব্যুরো চিফ প্রভাষক রিপন শান | অনুমতি ছাড়া ঢাকায় সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে ডিএমপি | বর্তমানে বাংলাদেশে অদৃশ্য অশুভ সংকেত লক্ষ্য করা যাচ্ছে-রানা দাশগুপ্ত | ভয়েস সিটিজি ধর্ম ব্যাবসায়ীদের কাছে ইসলামকে লিজ দেওয়া হয়নি |

পদ্মা সেতুর ৩৪ তম স্প্যান বসবে আজ সকাল ৮ টায় |

নিউজ ডেক্স
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ১০৩ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেক্স

পদ্মা সেতুর ৩৪ তম স্প্যান বসবে আজ সকাল ৮টায়

পদ্মা সেতুর ৩৪তম স্প্যান বসবে আজ রবিবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ৮টায়। ৭ ও ৮ নম্বর পিয়ারের ওপর স্প্যানটি বসানো হবে। শনিবার (২৪ অক্টোবর) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং এর মাওয়ায় অবস্থিত কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের স্টিল ট্রাস জেটি থেকে এটি পিলারের কাছে নেওয়া হয়। সেতুর একাধিক প্রকৌশলী এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

তিন হাজার ৬০০ টন সক্ষমতার পৃথিবীর সবচয়ে বড় ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই স্প্যানটি বহন করে নিয়ে যায়। ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ২-এ আইডির স্প্যানটি মাওয়া প্রান্তের স্প্যানের ওপর বসানো হবে। এই স্প্যানটি বসানোর পর সেতুর ৫ হাজার ১০০ মিটার দৃশ্যমান হবে।

নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের জানান, অক্টোবরে দুইটি স্প্যান বসানো হয়েছে। এটি বসানো হলে তিনটি হবে। এ মাসেই আরও একটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা আছে।

প্রকৌশলীরা জানান, ১৯ অক্টোবর সর্বশেষ ৩৩তম স্প্যান বসানো হয়েছিল। রবিবার বসছে ৩৪তম স্প্যান। ৩৫তম স্প্যান বসানো হবে ৩০ অক্টোবর। অর্থ্যাৎ, প্রায় পাঁচ দিন পর পর স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যেন ডিসেম্বরের মধ্যে সব স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হয়। ৩৪তম স্প্যান বসানোর পর বাকি থাকবে মাত্র সাতটি স্প্যান। সেতুর মোট ৪২টি পিয়ারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসবে।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা ব্যয়ে গৃহীত এই প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৮১ দশমিক ৫০ ভাগ এবং আর্থিক অগ্রগতি ৮৭ দশমিক ৫৫ ভাগ। নদী শাসন কাজের বাস্তব অগ্রগতি ৭৪ দশমিক ৫০ ভাগ। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত মোট ব্যয় হয়েছে ২৩ হাজার ৭৯৬ দশমিক ২৪ কোটি টাকা।

মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি) এবং নদী শাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব