1. admin@voicectg.com : admin :
বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:০১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভাস্কর্য বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে বিপাকে হেফাজত | এবার যখন আমরা ধরবো, ফাইনাল হয়ে যাবে-পরশ | দ্রত সেবা নিশ্চিতে সিএমপিতে সংযুক্ত হলো ৪টি বিশেষ কার | চিম্বুকে ৫ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে উত্তাল পার্বত্য ৩ জেলা | যুবলীগ যদি মাটে নামে ওস্তাদ দৌড়াইয়া কুল পাবেননা-চট্টগ্রামে নিক্সন চৌধুরী অবশেষে ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর আগামী সপ্তাহে শুরু | হাজী সেলিমের স্ত্রী গুলশান আরা মারা গেছেন | যুদ্ধাপরাধী জামাত হেফাজতের ব্যানারে একত্রিত হচ্ছে-শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল | আমরা কোনভাবেই মহান নেতা বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে নয়, ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে | চার দিন ধরে নিখোঁজ রাঙ্গুনিয়ার সেই আকাশ শীল |

উচ্ছৃঙ্খল জীবন যাপনে অভ্যস্ত বললেও, ইরফান জনসেবায়ও কম না |

ঢাকা থেকে উপদেষ্টা সম্পাদক
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ৭৬ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেক্স

উচ্ছৃঙ্খল জীবন যাপনে অভ্যস্ত বললেও, ইরফান জনসেবায়ও কম না|

গতকাল সারাদিন বিভিন্ন প্রভাবশালী রাজনৈতিক ও রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করেও সন্তানকে শেষরক্ষা করতে পারলেন না, ৯০ পরবর্তী ঢাকা সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কমিশনার থেকে ৯৬ সালে আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি, তারপরে সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত ও বর্তমান আওয়ামী লীগ দলীয় তিন বারের নির্বাচিত প্রভাবশালী সাংসদ জনপ্রিয় নেতা, দেশের স্বনামধন্য ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান মদিনা গ্রুপের চেয়ারম্যান হাজি মোহাম্মদ সেলিম।

পিতা মাতা দু’জনেই ছিলেন একসময়ের ঢাকা সিটির নির্বাচিত কমিশনার ও ঢাকা সিটির আওয়ামী রাজনীতিতে নির্যাতিত পরিবার, তাদেরই উত্তরসূরী এবং বর্তমানে শাশুর শাশুড়ীও একটি এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি নিজেও এখন ঢাকা সিটির কাউন্সিলর ইরফান,
সবসময় ছিলেন পরোপকারী সমাজসেবী সামাজিক বিচারেও ন্যায় বিচারক,
কিন্তু কারও কারও চোখে বদমেজাজী হলেও আবার তাদেরই দাবী যোগ্য বিচারক স্পষ্টবাদী কাউন্সিলর ইরফান, তাকে বিপদগামী করেছে সহকারী দাবি করা বডিগার্ড মাদকসেবি জাহিদুল,

নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় অভিযুক্ত সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিমের পুরান ঢাকার চকবাজারের ২৬ নম্বর দেবিদাসঘাট লেনের বাড়িতে টর্চার সেলের সন্ধান পেয়েছে র‍্যাব।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অভিযান চালান র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেখান থেকে বেশ কিছু অবৈধ জিনিসপত্র উদ্ধারের পর র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী জাহিদুল ইসলামকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন।

অভিযানের পর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ব্রিফিংয়ে র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের প্রধান লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানান, বেলা সাড়ে ১২টার সময় তারা অভিযুক্তের বাসা এবং অভিযুক্তকে শনাক্ত করতে সক্ষম হন।

এরপর তারা সাংসদ হাজী মোহাম্মদ সেলিমের দ্বিতীয় ছেলে ইরফান মোহাম্মদ সেলিম এবং তার দেহরক্ষী জাহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন।
র‍্যাব জানিয়েছে, ইরফানের বাসা তল্লাশি করে বেশ কিছু অবৈধ জিনিসপত্র পাওয়া গেছে। এরমধ্যে রয়েছে লাইসেন্সবিহীন একটি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র, ৫-৬ লিটার বিদেশি মদ এবং ৩৮ থেকে ৪০টি বিভিন্ন ধরণের ওয়াকিটকি।

র‍্যাব জানিয়েছে, সাধারণ নিরাপত্তা বাহিনী বা যেকোনো সুশৃঙ্খল বাহিনী এ ধরনের ওয়াকিটকি ব্যবহার করে থাকে।

এছাড়া দেহরক্ষী জাহিদুল ইসলামের কাছ থেকে চারশ পিস ইয়াবা এবং একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের অবৈধ ওয়াকিটকি রাখা ও ব্যবহারের জন্য ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মাদক রাখার জন্য আরো ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অর্থাৎ প্রত্যেকের মোট এক বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

এছাড়া ইরফান সেলিমের ভবনের পাশেই একটি টর্চার সেল পাওয়া গেছে বলে র‍্যাবের ব্রিফিংয়ে বলা হয়েছে, সেখান থেকে হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে ২৫ অক্টোবর রাতে ঢাকা-৭ আসনের এমপি হাজী মোহাম্মদ সেলিমের ‘সংসদ সদস্য’ লেখা সরকারি গাড়ি থেকে নেমে নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমেদ খানকে মারধর করা হয়। রাতে এ ঘটনায় জিডি হলেও ২৬ অক্টোবর ভোরে হাজী সেলিমের ছেলেসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ধাণমন্ডি থানায় মামলা করেন ওয়াসিফ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব