1. admin@voicectg.com : admin :
বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:১৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভাস্কর্য বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে বিপাকে হেফাজত | এবার যখন আমরা ধরবো, ফাইনাল হয়ে যাবে-পরশ | দ্রত সেবা নিশ্চিতে সিএমপিতে সংযুক্ত হলো ৪টি বিশেষ কার | চিম্বুকে ৫ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে উত্তাল পার্বত্য ৩ জেলা | যুবলীগ যদি মাটে নামে ওস্তাদ দৌড়াইয়া কুল পাবেননা-চট্টগ্রামে নিক্সন চৌধুরী অবশেষে ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর আগামী সপ্তাহে শুরু | হাজী সেলিমের স্ত্রী গুলশান আরা মারা গেছেন | যুদ্ধাপরাধী জামাত হেফাজতের ব্যানারে একত্রিত হচ্ছে-শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল | আমরা কোনভাবেই মহান নেতা বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে নয়, ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে | চার দিন ধরে নিখোঁজ রাঙ্গুনিয়ার সেই আকাশ শীল |

ভারতে বাংলাদেশ হাইকমিশন ঘেরাও পুলিশের লাঠিচার্জ আহত ২শ গ্রেফতার ৬০০ |

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেক্স
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫৪ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের প্রতিবাদে ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলের কলকাতার বাংলাদেশ উপ হাইকমিশন ঘেরাও কর্মসূচী পন্ড করে দিয়েছে পুলিশ। এ সময় সংগঠনটির প্রায় ২ শ এর অধিক নেতা কর্মিকে আহত ও ৬ শত’ নেতাকর্মীকে আটক করেছে কলকাতা পুলিশ।

কুমিল্লার মুরাদনগরে হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে হামলা ও অগ্নিসংযোগসহ সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এই কর্মসূচী দিয়েছিল ভারতের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনটি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কলকাতা উপ হাইমিশনের কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান বি এম জামাল হোসেন টেলিফোনে আমাদের সময় ডটকমকে জানান, আমরা বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়কে জানিয়েছি।
তিনি বলেন, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের হাইকমিশন ঘেরাও কর্মসূচী দিয়েছিল। কয়েশ নেতাকর্মী জড়ো হওয়ার চেষ্টা করেছিল। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কলকাতার সাংবাদিক রক্তিম দাস এ প্রতিবেদককে জানান, ‘এই কর্মসূচীর কারণে সকাল থেকেই বাংলাদেশ উপ হাইকমিশনের আশে-পাশের সব রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কয়েক দফা চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীরা ব্যর্থ হয়। পরে বেলা ১১টার দিকে গেরিলা কায়দায় বজরং দলের দুই হাজারের বেশি নেতাকর্মী হাইকমিশন এলাকায় প্রবেশ করে। এ সময় তারা সেখানে প্রধানমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। এ সময় পুলিশ লাঠি চার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং আটক করে নিয়ে যায়।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পূর্বক্ষেত্রের সম্পাদক অমিয় সরকার আমাদের সময় ডটকমকে বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীতে পুলিশ বাধা দিয়েছে। আমাদের ২ শ এর অধিক নেতাকর্মিকে আহত ও ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ছমাস ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘু হিন্দুদের ওপর হামলা করা হচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার তার কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। যারা আক্রান্ত হচ্ছেন তারা আমাদের ভাই, স্বজন। তাদের ওপর আক্রমণ হলে আমরা তো ঘরে বসে থাকতে পারি না।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হুশিঁয়ারী দিয়ে বলেন, অনতিবিলম্বে যদি এই সব হামলার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি না দেয় তাহলে আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের স্থলবন্দরগুলো অবরোধ করবো এবং সব ধরণের ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করে দেব।
কলকাতা পুলিশের এক কর্মকর্তা টেলিফোনে জানান, অনুমতি ছাড়া ডিপ্লোমেটিক জোনে কর্মসূচি করায় বিএইচপি ও বজরং দলের সমর্থকদের আটক করা হয়েছে। সন্ধ্যায় তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এ সময় কলকাতা পুলিশের সদর দপ্তর লালবাজারে বিষয়টি সম্পর্কে ব্রিফিং করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব